আইপিএলে শিরোপা জিতেছে যারা

45

আইপিএল ২০২০ এর ফাইনালে দুবাইয়ে দিল্লিকে ৫ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে শক্তিশালী মুম্বাই। এটি আইপিএলে মুম্বাইয়ের ৫ম ও টানা দ্বিতীয় শিরোপা জয়।

দুবাইয়ে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠা দিল্লি টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৬ রান করে। শুরুতে বোল্টের বোলিং তোপে পরে স্টইনিস, ধাওয়ান, রাহান্যে ব্যর্থ হয়ে ফিরলেও আয়ার ৫০ বলে অপরাজিত ৬৫ ও প্যান্ট ৪৮ বলে ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন। মুম্বাইয়ের হয়ে ৩ উইকেট শিকার করেন বোল্ট। কুল্টার নাইন ২ ও জয়ন্ত যাদব ১ উইকেট শিকার করেন।

চ্যাম্পিয়ন হতে ১৫৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক রোহিত শর্মার ৫১ বলে ৪ ছয়ে ৬৮, ডি ককের ১২ বলে ২০, সূর্যকুমারের ২০ বলে ১৯ ও ইশানের ১৯ বলে ৩৩ রানের সুবাদে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮.৪ ওভারে ১৫৭ রান করে ৫ উইকেটেট জয় দিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মুম্বাইয়। শিরোপা বঞ্চিত হয় দিল্লি।

২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো আয়োজিত আইপিএলে শিরোপা জিতেছে রাজস্থান রয়্যালস। সে আসরে রানার্সআপ হয় চেন্নাই সুপার কিংস। ২০০৯ সালে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুরকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ডেকান চাজার্স( ডেকানের নাম পাল্টে এখন হায়দ্রাবাদ হিসেবে খেলে)।

২০১০ সালে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় চেন্নাই সুপার কিংস। ২০১১ সালে ব্যাঙ্গালুরুকে হারিয়ে টানা ২য়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয় চেন্নাই সুপার কিংস। ২০১২ সালে চেন্নাইকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় কোলকাতা নাইট রাইডার্স। ২০১৩ সালে চেন্নাইকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ২০১৩ সালে কিংস ইলাভেন পাঞ্জাবকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় কোলকাতা নাইট রাইডার্স। ২০১৫ সালে চেন্নাইকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ২০১৬ সালে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। ২০১৭ সালে রাইজিং পুনে সুপার জায়ান্টকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ২০১৮ সালে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় চেন্নাই সুপার কিংস। ২০১৯ সালে চেন্নাইকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং সর্বশেষ ২০২০ সালে দিল্লি ক্যাপিটালসকে হারিয়ে ৫মবারের মতো শিরোপা জিতেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

২০০৮ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ১৩টি আসরের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫বার শিরোপা জেতে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ৩বার শিরোপা জিতে চেন্নাই সুপার কিংস। ২বার শিরোপা জিতে কোলকাতা নাইট রাইডার্স। ১বার করে শিরোপা জিতে রাজস্থান রয়্যালস, ডেকান চার্জার্স ও সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ।

সর্বোচ্চ ৫বার রানার্সআপ হয় চেন্নাই সুপার কিংস। ৩বার রানার্সআপ হয় রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। ১বার করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, কিংস ইলাভেন পাঞ্জাব, সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ, রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্ট ও দিল্লি ক্যাপিটালস রানার্সআপ হয়।

একের অধিক তথা সর্বোচ্চ ৩বার ফাইনাল খেলেও শিরোপা জিততে পারেনি রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু।