আসন্ন বাংলাদেশ বনাম উইন্ডিজ টেস্ট সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হতে যাচ্ছে কোন বাংলাদেশী ম্যাচ রেফারীর। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে আন্তর্জাতিক কোন ম্যাচে দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট নিয়ামুর রশিদ।

আইসিসির এলিট প্যানেলের সদস্যা না হয়েও তিনি এ দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন। মূলত কোভিড পরিস্থিতি তাকে ম্যাচ রেফারি হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে বিদেশি কোন আম্পায়ার-ম্যাচ রেফারিদের বদলে স্থানীয়রাই দায়িত্ব পালন করছেন। যে কারনে সেই দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন পুরন হতে চলেছে।

নিয়ামুর রশিদ পেশায় একজন ব্যাংকার হলেও ক্রিকেট তার প্রথম ভালোবাসা। নিজেও ছিলেন একসময়কার দাপুটে পেস অলরাউন্ডার। জাতীয় দলে দীর্ঘ দিন না খেললেও সুনামের সাথে খেলে গেছেন বহু লীগ। নর্দানস্পটনে পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই ঐতিহাসিক ম্যাচই ছিল তার শেষ ম্যাচ, তার আগে একই বছরের মার্চে ঢাকায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়। এই দুটি ওয়ানডে খেলেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হন।

নিয়ামুর রশিদ

একসময় ক্রিকেট ছেড়ে ব্যাংকিং পেশায় জড়িয়ে পড়ায় ক্রিকেট নিয়ে আর বেশি দূর যাওয়ার সুযোগ হয়নি নিয়ামুর রশিদের। বর্তমানে আছেণ দেশের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত ব্যাংক  মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে।

ক্রিকবল.কমকে জানান, স্বপ্ন ছিলো ক্রিকেটে কিছু করার, অবশেষে সেই আক্ষেপ ঘুচতে চলেছে। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্টে ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে কাজ করতে পারার ব্যাপারে দারুন আশাবাদী এবং সাফল্য প্রত্যাশী তিনি। দেশের জন্য সাফল্য বয়ে আনতে চান। এবার ভালোভাবে দায়িত্ব পালন করে ক্রিকেটের এই জায়গাগুলোতে তিনি বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করতে চান সেই সাথে নিজেকে নিয়ে যেতে চান অনন্য উচ্চতায়।