তৈয়ব বন্দনায় মুখর ফিফা

138

করোনার ক্রান্তিলগ্নে অসহায় মানুষদের পাশে বিত্তবানদের পাশাপাশি দাঁড়াচ্ছেন ক্রীড়া ব্যক্তিত্বগণ। নিলামে তুলছেন তাদের ব্যক্তিগত জিনিসপত্র কিংবা স্মারক। প্রাপ্য অর্থের পুরোটাই বিলিয়ে দিচ্ছেন দুস্থদের মাঝে। সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান ও তার প্রিয় জার্সি বিক্রির টাকা তুলে দিয়েছেন সমাজের দীনদুঃখী জনগণের হস্তে। আর, তার এই মহতী উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করে তাকে অভিবাদন জানিয়েছেন খোদ ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।  

স্বদেশী ম্যাচ নিয়ন্ত্রকদের মাঝে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ পরিচালনার অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ রেফারি তৈয়ব হাসান দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম রেফারি যিনি ২০১৩ সালে  নেপালে অনুষ্ঠিত সাফের ফাইনাল ম্যাচের সূচনাসূচক বাঁশি বাজান। আর সেই ঐতিহাসিক ম্যাচের জার্সিখানাই নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। গত ৯ মে বাংলাদেশী টাকায় ৫ লাখ ৫৫ হাজার অর্থমূল্যে উক্ত স্মারক স্মৃতি বিক্রিত হয়। 

সামাজিক এই কাজের জন্য তৈয়ব হাসানকে অভিনন্দন জানিয়ে ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো লিখেন, ‘ আমি আপনাকে এই সুন্দর মানসিকতার জন্য অভিনন্দন জানাতে চাই। এই কঠিন সময়ে, আপনার মতো প্রশংসনীয় উদ্যোগ অনেকের দুর্দশা দূর করতে সহায়ক হবে। ‘ এএফসি, এএফসির কর্মকর্তাদের কাছ থেকেও অভিনন্দন পেয়েছেন তিনি।

১৯৯৯ সাল থেকে ২০১৬ অব্দি ১৭ বছরের ক্যারিয়ারে শতাধিক ম্যাচ পরিচালনা করার পাশাপাশি তৈয়ব হাসান কুড়িয়েছেন আকাশসম সম্মাননা।