দূরন্ত বাটলারে নির্ভরতা!

109

রঙ্গীনের পোষাকের সাদা বলে ইংল্যান্ডের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান জস বাটলার। একদিনের দুটি ফরম্যাটে বাটলারের পারফরম্যান্স ইংলিশ দলের সবসময়েই জন্য বেশ কার্যকর হলেও টেস্টে বেশ কিছুদিন বিবর্ণ ছিলেন বাটলার। উইন্ডিজের সাথে পরপর দুই ম্যাচে ঘরের মাঠে বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হওয়া বাটলারের টেস্ট ক্যারিয়ারের শেষ দেখছিলেন অনেকেই। সিরিজের ৩য় ম্যাচে ৬৭ রানের ইনিংস খেলে লম্বা ইনিংসের ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিলেন। পাকিস্তানের সাথে সিরিজের প্রথম ম্যাচে দলের পরাজয়ের শংকা তৈরীর পর ব্যাট হাতে খেললেন ৭৫ রানের দূর্দান্ত ইনিংস। দলকে জেতানোর পর বাটলার স্বীকার করে নিয়েছেন, এ ইনিংসটি না হলে টেস্ট ক্যারিয়ার থেমে যেতে পারতো তার।

সিরিজের ২য় টেস্টে বৃষ্টির কারনে ব্যাটিংয়ের সুযোগ না হলেও ৩য় টেস্টে খেললেন ১৫২ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। ফর্মে ফিরে দলের সিরিজ জয়ে দুর্দান্ত ভূমিকা রাখা বাটলার ছিলেন না পাকিস্তানের সাথে টি২০ সিরিজে।

অস্ট্রেলিয়ার সাথে টি২০ সিরিজে পুনরায় ফিরেই ব্যাট হাতে ঝড়। প্রথম ম্যাচে খেলেছেন ৪৪ রানের ইনিংস। আর গতকাল সিরিজের ২য় ম্যাচে ৭৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জয়ী করেছেন। এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করেছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

অফফর্মের কারনে চাপে থাকা বাটলার টেস্ট ও টি২০ মিলিয়ে সর্বশেষ ৬ ম্যাচ েখলেছেন ৬৭, ৭৫, ০* ১৫৪, ৪৪ ও ৭৭* রানের ইনিংস। আস্থার প্রতিদান দিয়ে দূর্দান্ত ভাবে ফিরে আসা বাটলার এখন নির্ভরতার প্রতীক হয়েই খেলছেন ইংলিশ দলে। অজিদের হোয়াইটওয়াশ করার ম্যাচে বাটলার একাদশে থাকলে আবারো ঝড় তোলে প্রতিপক্ষকে গুড়িয়ে দেয়ার মতো ইনিংস খেলবেন, সে প্রত্যাশা থাকছেই।