ক্রিকেটে বিশ্বকাপের সূচনা হয়েছিল মহিলা ক্রিকেটের হাত ধরেই। ১৯৭৩ সালে প্রথম ক্রিকেট সার্কিটে বিশ্বকাপের সংযোজন করে আইসিসি এবং সেটি ছিল মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ। এর দু’বছর পর আত্মপ্রকাশ ঘটে পুরুযদের বিশ্বকাপের।

মহিলা বিশ্বকাপের প্রথম আসর বসে ইংল্যান্ডে। ১৯৭৩ সালের ২০ জুন থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত চলেছিল এই টুর্নামেন্ট। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো, ইয়ং ইংল্যান্ড-সহ মোট সাতটি দলকে নিয়ে এই টুর্নামেন্টের সূচনা করেছিল আইসিসি। টুর্নামেন্টের সার্বিক সাফল্যের জন্য আইসিসি ছাড়াও নিজের পকেট থেকে অর্থ দিয়েছিলেন বিখ্যাত ব্রিটিশ ব্যবসায়ী স্যার জ্যাক হেওয়ার্ড।

ভ্যালেন্টাইনস পার্ক, পার্ক অ্যাভিনিউ, ম্যানর ফিল্ড, এজবাস্টনের মতো ইংল্যান্ডের সেরা স্টেডিয়ামগুলিতে খেলা হয়েছিল এই বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের প্রথম বছরই সেরার শিরোপা জিতে নিয়েছিল আয়োজক দেশ ইংল্যান্ড। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে ৯২ রানে হারিয়ে এই খেতাব জিতেছিলেন তারা। মোট ২৬৪ রান করে টুর্নামেন্টের সর্বাধিক রান সংগ্রহকারী ছিলেন ব্রিটিশ ওপেনার এনিড বেকওয়েল। অন্য দিকে, ১২টি উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্টের সেরা বোলারের পুরস্কার পেয়েছিলেন ইয়ং ইংল্যান্ডের রোসেলিন্ড হেগস।

এই টুর্নামেন্টের সাফল্যই আইসিসিকে ভাবতে বাধ্য করেছিল পুরুষদের বিশ্বকাপের জন্য। টানা দু’বছরে মহিলা বিশ্বকাপের সাফল্য দেখেই ১৯৭৫ সালে শুরু করা হয়েছিল গ্যারি গ্লিমোর, বার্নাড জুলিয়ান, ক্লাইভ লয়েডদের জন্য ক্রিকেট বিশ্বকাপ।

সূত্র : আনন্দবাজার