বস অলওয়েজ বস

124

জুবায়ের আহমেদ:

তিনি টি২০ ক্রিকেটের সুপার পাওয়ার, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও নিজেকে অনন্য উচ্চতায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন দানবীয় ব্যাটিং করে।

ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটের এই মারকুটে ওপেনার সর্বশেষ বেয় কয়েক বছর ধরে টি২০ ক্রিকেটেই বেশি খেললেও টেস্টে ২টি ত্রিপল সেঞ্চুরী আছে গেইলের দখলে, যে কৃতিত্ব আছে হাতগুনা কয়েকজনের। আছে ওয়ানডেও বিশ্বকাপে ডাবল সেঞ্চুরির বিস্ময়।

টি২০ ক্রিকেটে ২২ শতক করে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করা এই দানবীয় ব্যাটসম্যান আইপিএল, বিপিএল, বিগব্যাশ, সিপিএল সহ জনপ্রিয় সব টি২০ লীগের অন্যতম সেরা পারফরম্যার। নিজেকে ইউনিভার্স বস হিসেবে নিজেই আখ্যায়িত করেন এবং বসের মতোই পারফর্ম করে সবার মন জয় করেছেন সব সময়।

আইপিএলে সবচেয়ে বেশি শতক ও ম্যাচসেরা (বর্তমানে দুইয়ে) এবং সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকানো এই ক্রিকেটার ৪১ বছর বয়সে এসে সমান তালে পারফর্ম করলেও আইপিএলে অনেকটাই ব্রাত কয়েক আসর ধরে। গত দুই আসরে পাঞ্জাবের হয়ে অসাধারণ খেলে নিজের প্রতি অবহেলার জবাব দেওয়া এই ওপেনার এবার শুরু থেকে দলের সাথে যোগ দিয়েও খেলার সুযোগ হয়নি টানা ৭ ম্যাচ।

৫ ম্যাচ শেষে খেলার কথা থাকলেও খেলতে পারেননি অসুস্থতার জন্য। অবশেষে গতকাল পুরনো দল ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে খেলতে নামেন। কোহলী বাহিনীর গড়া ১৭১ রানের জবাবে তিনে ব্যাট করতে নেমে সাবধানী শুরু করলেও মাঝখানে ব্যাট হাতে ঝড় তোলে ৩৬ বলে ফিফটি হাঁকান। জয় থেকে ১ রান দূরে থাকার সময় গেইল ৫৩ রান করে ফিরলেও ৮ উইকেটের বড় জয় তোলে নেয় পাঞ্জাব।

পরাজয়ের বৃত্তে থাকা পাঞ্জাব জয়ে ফিরে গেইল-রাহুল ও আগারওয়ালের ব্যাটিং নৈপুণ্যে। ৮ ম্যাচে ২য় আসে পাঞ্জাবের।

৪১ বছর বসয়ী গেইলকে অবহেলা করা হলেও গেইল নিজের সামর্থ জানেন বলেই এখনো খেলছেন, আর পারবেন না মনে হলে নিজ থেকেই বিদায় নেবেন। এর আগে যতদিন খেলবেন, ততদিন তাকে অবহেলা করা উচিত নয়, চলতি বছরে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামলেও তাই বুঝিয়ে দিলেন গতকাল। তিনি বুঝিয়ে দিলেন বস অলওয়েজ বস।