বাংলাদেশ দলের নতুন স্পন্সর হয়েছে দারাজ। আগামী ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠানটিই জাতীয় দলের স্পন্সর হিসেবে থাকবে। এমন চুক্তিই হয়েছে বিসিবি এবং দারাজের মধ্যকার। শুধু বাংলাদেশ পুরুষ জাতীয় দলই নয়, নারী জাতীয় ক্রিকেট দল, জাতীয় ‘এ’ নারী-পুরুষ দল এবং অনূর্ধ্ব-১৯ নারী-পুরুষ দলের স্পন্সর হিসেবে থাকবে অনলাইন মার্কেটিং প্রতিষ্ঠানটি।

করোনাকালীন সময়ে স্পন্সর নিয়ে বেশ ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে। কোনো ধরনের স্থায়ী স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি করতে পারছিল না বোর্ড। সিরিজ বাই সিরিজ স্পন্সর দিয়ে আসা হচ্ছিল।

অবশেষে স্পন্সর নিয়ে চলা দীর্ঘদিনের সমস্যার সমাধান হয়েছে। বাংলাদেশ দলের নতুন স্পন্সর হয়েছে দারাজ। আগামী ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠানটিই জাতীয় দলের স্পন্সর হিসেবে থাকবে। এমন চুক্তিই হয়েছে বিসিবি এবং দারাজের মধ্যকার। শুধু বাংলাদেশ পুরুষ জাতীয় দলই নয়, নারী জাতীয় ক্রিকেট দল, জাতীয় ‘এ’ নারী-পুরুষ দল এবং অনূর্ধ্ব-১৯ নারী-পুরুষ দলের স্পন্সর হিসেবে থাকবে অনলাইন মার্কেটিং প্রতিষ্ঠানটি।

এদিকে একইসাথে দলগুলোর নতুন কিট স্পন্সর নির্ধারন করেছে বিসিবি। এখন থেকে কিট স্পন্সর হিসেবে থাকবে হাংরিনাকি। ৭ এপ্রিল ২০২১ সাল থেকে ৩০ নভেম্বর ২০২৩ সাল পর্যন্ত বিসিবির সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে এই দুটি প্রতিষ্ঠান। যার ফলে নিশ্চিতভাবেই ভারতে অনুষ্ঠিত ২০২৩ পুরুষ ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সাথে থাকছে প্রতিষ্ঠান দুটি।