শুভ জন্মদিন অনিল কুম্বলে

60

জুবায়ের আহমেদ:
ভারতীয় কিংদবন্তী স্পিনার অনিল কুম্বলে। টেস্ট ক্রিকেটে ৩য় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী এই স্পিনার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিয়েছেন ২০০৮ সালে। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটকে গুডবাই জানালেও বিস্ময়কর রেকর্ডের জন্য তিনি ক্রিকেট দুনিয়ায় অমর হয়ে থাকবেন আজীবন। টেস্ট ক্রিকেটে ৩য় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারীর রেকর্ড ছাড়াও যৌথভাবে ইনিংসে ১০ উইকেট শিকারের বিস্ময়কর রেকর্ড কুম্বলে বেঁচে থাকবেন ক্রিকেট ও ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সকলের মাঝে।

১৯৫৬ সালে ইংল্যান্ডের কিংবদন্তী স্পিনার জিম লেকার অস্ট্রেলিয়ার সাথে ইনিংসে ১০ উইকেট শিকারের নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেন। সে ম্যাচে লেকার অবশ্যই দুই ইনিংসেই ১০ উইকেট শিকার করতে পারতেন। প্রথম ইনিংসে ৯ উইকেট শিকারের পর ১ উইকেটের আক্ষেপ ঘুচিয়েছিলেন ২য় ইনিংসেই ১০ উইকেট শিকার করে। ম্যাচে ১৯ উইকেট শিকারের বিস্ময়কর রেকর্ড, তাকে অমরত্ব এনে ক্রিকেটে।

১৯৯৯ সাল। দিল্লিতে ৪ই ফেব্রæয়ারী পাকিস্তানের মুখোমুখি হয় স্বাগতিক ভারত। ভারত প্রথম ইনিংসে ২৫২ রানে অলআউট হওয়ার পর পাকিস্তানও অলআউট হয় মাত্র ১৭২ রানে। কুম্বলে ৪ উইকেট শিকার করেন।

ভারত ২য় ইনিংসে ৩৩৯ রান করলে পাকিস্তানের সামনে ৪২০ রানের। পাকিস্তানের হয়ে বিশাল লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে আফ্রিদি ও সাঈদ আনোয়ার ১০১ রানের জুটি গড়ে দারুণ শুরু করলেও আফ্রিদিকে ব্যক্তিগত ৪১ রানে ফেরানোর মাধ্যমেই অনিলের রেকর্ড গড়ার যাত্রা শুরু হয়। ওয়াসিম আকরামকে আউট করেই গড়েন ইতিহাস। অনিল কুম্বলের বিস্ময়কর বোলিংয়ে ২০৭ রানে অলআউট হয়ে পাকিস্তান ম্যাচ হারে ২১২ রানে। কুম্বলে একাই ১০ উইকেট শিকার করে টেস্ট ক্রিকেটে ২য় বোলার হিসেবে ১০ উইকেট শিকারের বিস্ময়কর রেকর্ড গড়েন।

টেস্ট ক্রিকেটে ৩য় সর্বোচ্চ ৬১৯ উইকেট শিকারের পাশাপাশি ওয়ানডেতে শিকার করেছেন ৩৩৭ উইকেট। আন্তর্জাতিক উইকেট সংখ্যা ৯৫৬ উইকেট। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ১১৩৬ উইকেট। লিষ্ট এ ক্রিকেটে ৫১৪ এবং টি২০ ক্রিকেটে ৫৭ উইকেট শিকারী অনিল কুম্বলের আজকে ৫০তম জন্মদিন।

১৯৭০ সালের ১৭ই অক্টোবর কর্ণাটকে জন্মগ্রহণ করেন এই কিংবদন্তী ক্রিকেটার। জন্মদিনের অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইল। সফল ক্রিকেট ক্যারিয়ারের মতো কোচিংয়েও সফলতার স্বাক্ষর রাখবেন, সে প্রত্যাশা থাকছেই।