শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে আজ বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি চার্টার্ড ফ্লাইটে করে শ্রীলঙ্কা উড়াল দিলো বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। দুই টেস্টের জন্য ২১জনের প্রাথমিক দলের সাথে কোচ, সাপোর্ট ষ্টাপ, বিসিবি কর্মকর্তা মিলেয়ে মোট ৪১ জন যাচ্ছেন শ্রীলঙ্কা।

বিশ্বে মহামারী করোনা ভাইরাসে প্রভাব কিছুটা কমার পরেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দল প্রথমে নিউজিল্যান্ড সফর করেন। নিউজিল্যান্ডে তিন ম্যাচ ওয়ানডে ও তিন ম্যাচ টি-টুয়েন্টি সিরিজে চরম ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ দল। নিউজিল্যান্ড থেকে শূন্য হাতে ফিরতে হয়েছে তামিম – মুশফিকদের। নিউজিল্যান্ডের ব্যর্থতা ভুলে শ্রীলঙ্কা যাচ্ছেন বাংলাদেশ টিম। নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন না দলের ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক। তবে দক্ষিণ আফ্রিক থেকে আগামী ১২ এপ্রিল দলের সাথে যোগ দিবেন ফিল্ডিং কোচ কুক। বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কা পৌছে তিন দিন কোয়ারেন্টানে থাকবে। এরপরেই অনুশীলনের সুযোগ পাবে মমিনুলরা। ২১ এপ্রিল ক্যান্ডির পালেকেল্লে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে নিজেদের মধ্যে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন টাইগাররা। ১৭ ও ১৮ এপ্রিল হবে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ। শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশ দল স্থানীয় কোন নেট বোলার পাবে না। তাই ২১ সদস্যের দল নিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশ টিম। প্রথম টেস্টের আগে প্রাথমিক দল থেকে ১৬ সদস্যের দল চূড়ান্ত করবে বাংলাদেশ টিম। এরপরে বাকি ক্রিকেটাররা প্রথম টেস্টের আগে ২৯ এপ্রিল বাংলাদেশে ফিরবে।

বাংলাদেশ দলের সাথে রয়েছেন টিম লিডার খালেদ মাসুদ সুজন। তিনি শ্রীলঙ্কা টেস্ট নিয়ে ভালো ফলের আশাবাদি। তিনি বলেন, ভুলের পুনরাবৃত্তি করতে চায় না তার দল। শ্রীলঙ্কার চেনা কন্ডিশনে সেরা ক্রিকেট খেলতে চায় ক্রিকেটরা। আর সেটা খেলতে পারলেই শ্রীলঙ্কা সফর সার্থক হবে বলে মনে করেন তিনি।
বাংলাদেশ টিম সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। সেখানে চার দিন ভালো খেললেও পঞ্চম দিনে কাইল মায়ার্সের কাছে হেরে যায় বাংলাদেশ টিম।